মফস্বলের কবিতা

মফস্বলের কবিতা

০৭.

অসুস্থ শরীর

মাটির অতলে কালো জল

নদীর চরায় নীল শঙ্খ জেগে আছে মানুষের মতো

রাত্রির সাম্পানে

সাজিয়েছে সমস্ত সংসার

স্রোতের সম্মুখে কালো জল

আমাদের সঙ্গ ছেড়ে

বহুদূর

লতাগুল্মহীন

জঙ্গলের দিকে যাচ্ছে

যেন সে বনের পাখি

মাঝে-মাঝে মনে হয়

ফিরে যাই

দেখে আসি সুখপাখি

গভীর দূরত্বে পোড়ে বৈষয়িক সাম্পান

গভীর দূরত্ব থেকে ভেসে আসে শঙ্খনিনাদ

কালো রঙের মেঘ

বৃষ্টির তোড়ে ধুয়ে যায় অসুস্থ শরীর

সুখপাখি…

০৮.

পাফাটা বাপের কপালে খরাদাহ ক্ষেত

মা আমার ছেঁড়া শাড়িতে মানিয়ে নিয়েছেন বেশ

গামছা তৈরির পদ্ধতি জানা থাকলে

এবছর অনেক মাছ ধরা যেত

বিলের সঙ্গে সখ্যতা থাকলে

নাড়ার আগুনে

পুড়তো না জলবতী মেঘের কেশ

পাফাটা বাপ ক’দিন হলো ছোট মেয়েকে দেখতে গেছেন

ছেঁড়াশাড়িমা ক’দিন হলো বড় মেয়ের আচি করতে গেছেন

ছাগলের পিছনে ছুটতে-ছুটতে পাগল হয়ে যাচ্ছি

‘অভাবে স্বভাব নষ্ট’

অভাবের ধর্মগুণ পাগলের চিন্তার মতো এলোমেলো

মা-বাবা ফিরে এলেই গঞ্জের হাটে ফুরিয়ে যাবে ছাগলের মায়া

০৯.

একা     নিঃসঙ্গ           অস্থির

নগ্ন       খিস্তি-খেউর  দৌড়ঝাঁপ

কথা বলে না

গান গায়

শত বছরের চেনা মানুষের ছায়া

শরীরে জড়িয়ে হেঁটে বেড়ায়

ভেতরে ক্ষরণ  নিরানন্দ

আত্মবিবর থেকে বেরিয়ে কোথায় যেন যাচ্ছে

বিচ্ছিন্ন       সত্তাহীন       অসামাজিক

নগ্ন      খিস্তি-খেউর       দৌড়ঝাঁপ

সামাজিক সুতোটি ছিঁড়তে-ছিঁড়তে সম্পূর্ণ ছিঁড়ে ফেলেছে

বিষণ্ন       অস্থির

আমাদেরই লোক

চেনাজানা

কোথায় যেন যাচ্ছে…


Warning: count(): Parameter must be an array or an object that implements Countable in /home/chinnofo/public_html/wp-includes/class-wp-comment-query.php on line 399
আলোচনা